মাধবপুরে ভূমিহীন ২৪টি পরিবারকে সরে যাওয়ার নির্দেশ

  • আপডেট টাইম : September 10 2021, 11:35
  • 24 বার পঠিত
মাধবপুরে ভূমিহীন ২৪টি পরিবারকে সরে যাওয়ার নির্দেশ

মাধবপুর প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া ইউনিয়নের ব্যাঙ্গাডোবা গ্রামের ভূমিহীন ২৪টি পরিবারকে ৩ দিনের মধ্যে তাদের বসতবাড়ি সরিয়ে নিতে রেল কর্তৃপক্ষ নির্দেশ দিয়েছে।
এ নির্দেশে দুচোখে সর্ষেফুল দেখছে পরিবারগুলো। কারণ আর কোন জায়গা নেই তাদের। এ অবস্থায় পরিবার-পরিজন নিয়ে গাছতলায় আশ্রয় নেওয়া ছাড়া বিকল্প নেই।
অসহায় এই পরিবারগুলো হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের লিখিত আবেদন করেছে। এতে বলা হয়েছে, নোয়াপাড়া রেল স্টেশনের উত্তরদিকে অবস্থিত রেললাইনের পূর্ব ও পশ্চিম পাশে রেলের অব্যবহৃত জমিতে প্রায় ৪০ বছর যাবৎ তারা বসবাস করছে; কিন্তু একটি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় রেল স্টেশনের চারদিকে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হচ্ছে। তাদের বসতঘরগুলো সীমানা প্রাচীরের বাইরে পড়ে যাওয়ায় তাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ হয়ে যাবে। অর্থাৎ রাস্তা না রেখে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হলে এই পরিবারগুলোর লোক চলাচলের কোন পথ থাকবেনা। তারা রীতিমতো অবরুদ্ধ জীবনে চলে যেতে বাধ্য হবে।
তারা গত ১১ আগস্ট মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে রেলমন্ত্রী বরাবর একটি দরখাস্ত করে। ১৪ আগস্ট করে মানববন্ধন। এমন পরিস্থিতিতে ১৫ আগস্ট মাধবপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ মো শাহজাহান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন এলাকা সরজমিনে পরিদর্শন করেন।
এছাড়া গত ২৬ আগস্ট বাংলাদেশ রেলওয়ে চট্রগ্রাম সিআরবি প্রধান প্রকৌশলী এলাকা পরিদর্শনে এলে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এলাকার লোকজনের চলাচলের জন্য দুটি পকেট গেইট রাখার আবেদন জানান। এরপরও ৮ সেপ্টেম্বর উপসহকারী প্রকৌশলী/ কার্য্য বাংলাদেশ রেলওয়ে শায়েস্তাগঞ্জ স্বাক্ষরিত একটি নোটিশে তিন দিনের মধ্যে ২৪টি পরিবারকে বসতঘর সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়।
ব্যাঙ্গাডোবা গ্রামের বাসিন্দা মো ফায়েজ মিয়া জানান, তাদেরকে উচ্ছেদ করা হলে তাদের মাথাগোঁজার কোন ঠাঁই থাকবেনা। সন্তানদের পড়ালেখা বন্ধ হয়ে যাবে। কোথাও যেতে পারবেন না চিকিৎসার প্রয়োজনে। এমনকি মরদেহ দাফনেরও উপায় থাকবেনা।
মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন জানান, রেলওয়ে বিভাগের নির্দেশ সম্পর্কে তিনি অবগত নন।