সিলেটে স্বাস্থ্য-সাংবাদিকতা বিষয়ক দুদিনের কর্মশালা শুরু

  • আপডেট টাইম : September 20 2021, 18:19
  • 19 বার পঠিত
সিলেটে স্বাস্থ্য-সাংবাদিকতা বিষয়ক দুদিনের কর্মশালা শুরু

স্বাস্থ্য সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ ও জটিল বিষয়ে ইন-ডেপথ প্রতিবেদন প্রস্তুত করতে সাংবাদিকদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ এনজিও’স নেটওয়ার্ক ফর রেডিও এন্ড কমিউনিকেশন-বিএনএনআরসির উদ্যোগে ও দি এশিয়া ফাউন্ডেশনের সহায়তায় সোমবার থেকে সিলেটে ‘স্বাস্থ্য-সাংবাদিকতায় মূল ঘটনা যাচাই ও তথ্যের সত্যতা নিরূপণ কৌশল’ বিষয়ক কর্মশালা শুরু হয়েছে।
মহানগরীর পূর্ব জিন্দাবাজারে একটি অভিজাত হোটেলের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত দুইদিনের এ কর্মশালায় জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও টেলিভিশনের মোট ২০ জন সাংবাদিক অংশ নিচ্ছেন।
কর্মশালার উদ্দেশ্য হলো, স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত বস্তুনিষ্ঠ, অন্তর্দৃষ্টিসম্পন্ন এবং প্রভাব বিস্তারকারী সংবাদ তৈরি, প্রকাশ ও প্রচারে কর্মরত সাংবাদিকদের সক্ষমতা বৃদ্ধি। পাশাপাশি নিরপেক্ষ ও ভারসাম্যপূর্ণ স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য যাচাই-বাছাই এবং উপস্থাপনে আধুনিক কলাকৌশল (ইনফোগ্রাফিক্স, উপাত্ত বিশ্লেষণ ও উপাত্ত দৃশ্যমান করা) বিষয়ক জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন ও অনুশীলনে সাংবাদিকদের উৎসাহিত করা।
কর্মশালায় মূলত বর্তমান প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্য বিষয়ক সাংবাদিকতা, স্বাস্থ্য-সাংবাদিকতায় বিশ্বস্ত তথ্য সূত্র, তথ্যের উৎস, তথ্য যাচাইয়ের কৌশল এবং মাধ্যমসমূহ, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ভুল তথ্যের মনিটরিং কৌশল ও কোভিড-১৯ বিষয়ক প্রতিবেদনের ক্ষেত্রে সংবেদনশীলতা ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।
এছাড়া স্বাস্থ্য-সাংবাদিকতায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক যোগাযোগ বাড়ানোর বিভিন্ন মাধ্যমসহ মিসইনফরমেশন, ডিসইনফরমেশন, ম্যাল-ইনফরমেশন প্রতিরোধ এবং প্রতিবেদনে ইনফোগ্রাফিক্সের ব্যবহারের গুরুত্ব ও কৌশল সম্পর্কে অংশগ্রহণকারীদের ধারা দেওয়া হচ্ছে।
কর্মশালার বিভিন্ন বিষয়ের ওপর আলোচনা করেন, বাংলাভিশনের সিনিয়র নিউজ এডিটর আবু রুশ্দ মো রুহুল আমীন ও সিলটিভি সিলেটের প্রধান নির্বাহী আল আজাদ।
এছাড়া দি এশিয়া ফাউন্ডেশনের সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার মো জাকারিয়া শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, তিনি বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্য বিষয়ক সাংবাদিকতায় বিশ্বস্ত তথ্য সূত্র এবং উৎস ও তথ্য যাচাইয়ের কৌশলগুলো ব্যবহার করা খুবই জরুরি। বিশেষ করে বর্তমান কোভিড-১৯ মহমারির সময়ে।
তিনি উল্লেখ করেন, তথ্য যাচাই এবং এর কৌশলগুলো ব্যবহার করে একটি বিশ্বাসযোগ্য ও নির্ভরযোগ্য প্রতিবেদন তৈরিতে সাংবাদিকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন।
আশা করা হচ্ছে, কর্মশালা থেকে সাংবাদিকগণ নিরপেক্ষ এবং ভারসাম্যপূর্ণ স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য যাচাইয়ের ক্ষেত্রে আরো বেশি সচেষ্ট ও সংবেদনশীল হবেন। পাশপাশি প্রতিবেদনের তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপনে ইনফোগ্রাফিক্সসহ অন্যান্য আধুনিক কলা-কৌশল ব্যবহারে উৎসাহী হবেন।
উল্লেখ্য, বিএনএনআরসি একটি গণমাধ্যম উন্নয়ন বিষয়ক সংস্থা যা ২০০০ সালে আত্মপ্রকাশ করে এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন এনজিও বিষয়ক ব্যুরো থেকে নিবন্ধিত হয়। বিএনএনআরসির কর্মপ্রচেষ্টা হলো, বাংলাদেশে গণমাধ্যমের দ্রুত পরিবর্তনশীল বাস্তবতার চ্যালেঞ্জ ও সুযোগ-সুবিধাসমূহ বিবেচনায় রেখে গণমাধ্যমের জ্ঞানভিত্তিক ও চলমান ইস্যু উভয় বিষয় নিয়ে গণমাধ্যমের উন্নয়ন ।
বিএনএনআরসি নলেজ-ড্রাইভেন মিডিয়া ডেভেলপমেন্টের ভূমিকায় আঞ্চলিক, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে কাজ করে থাকে। এটি জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড সামিট অন ইনফরমেশন সোসাইটি-ডব্লিউএসআইএস ও জাতিসংঘের ইকোনোমিক এন্ড সোশ্যাল কাউন্সিলের বিশেষ পরামর্শক মর্যাদাপ্রাপ্ত সংস্থা এবং জাতিসংঘের ডব্লিউএসআইএস পুরস্কার-২০১৬, ২০১৭, ২০১৯, ২০২০ ও ২০২১ এর বিজয়ী এবং চ্যাম্পিয়ন।