আতাউর রহমান বাংলা রম্যসাহিত্যে এক আলোকিত প্রতিভা : সিলেটে স্মরণসভা

  • আপডেট টাইম : October 09 2021, 07:47
  • 14 বার পঠিত
আতাউর রহমান বাংলা রম্যসাহিত্যে এক আলোকিত প্রতিভা : সিলেটে স্মরণসভা

সিলেটে এক স্মরণসভায় বক্তারা অভিমত রেখেছেন, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, খ্যাতিমান রম্যলেখক ও ডাকবিভাগের সাবেক মহাপরিচালক আতাউর রহমান ছিলেন বাংলাসাহিত্যে রম্যরচনায় স্মরণকালের এক বিরল ও আলোকিত প্রতিভা। বাংলাসাহিত্যে আবুল মনসুর আহমদ ও সৈয়দ মুজতবা আলীর মাধ্যমে রম্যরচনার যে জাগরণ সৃষ্টি হয়, আতাউর রহমান সে জাগরণকে অনেকখানি এগিয়ে দেন। গল্প, কথায় কিংবা বক্তৃতায় তিনি যেভাবে হাস্যরস সৃষ্টি করতে পারতেন, তা তার এক ব্যতিক্রমী প্রতিভা হিসেবেই বিধৃত। ‘সেন্স অব হিউমার’ সৃষ্টির অনন্য রচনার ভেতরেও তিনি একজন মানবতাবাদী ব্যক্তিত্ব ছিলেন।
পাণ্ডুলিপি প্রকাশন, সিলেটের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার রাতে সিলেট মহানগরীর ধোপাদিঘির পূর্বপারে পাণ্ডুলিপি মিলনায়তনে এই স্মরণসভার আয়োজন করা হয়।
পাণ্ডুলিপি প্রকাশনের স্বত্বাধিকারী বায়েজীদ মাহমুদ ফয়সলের সভাপতিত্বে এতে সম্মানিত আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মদনমোহন কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লে কর্নেল (অব) এম আতাউর রহমান পীর ও জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লে কর্নেল (অব) সৈয়দ আলী আহমদ। স্মরণসভাটি সঞ্চালনা করেন কবি ও প্রাবন্ধিক মো আব্দুল বাছিত।
উল্লেখ্য, রম্যলেখক আতাউর রহমান ১৯৪২ খ্রিস্টাব্দে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের নগর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম এ ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর কিছুদিন সিলেট মুরারি চাঁদ (এমসি) কলেজ ও মদনমোহন কলেজে শিক্ষকতা করেন। পরবর্তী সময়ে তৎকালীন পাকিস্তান কেন্দ্রীয় সুপিরিয়র সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সিএসপি অফিসার হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন। তিনি লন্ডন ও রিয়াদের বাংলাদেশ বাণিজ্যিক ও কূটনৈতিক দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি চাকরি জীবনে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মহাপরিচালক পদ থেকে ২০০২ খ্রিস্টাব্দে অবসর নেন। অবসরের পর তিনি বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত ছিলেন। তার প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ২৪। এছাড়া স্থানীয় ও জাতীয় পত্র-পত্রিকা ও সাময়িকীতে তার অসংখ্য প্রবন্ধ-নিবন্ধ এবং রম্যরচনা প্রকাশিত হয়। একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান আমলা, লেখক, শিক্ষক, কূটনীতিক ও অসাধারণ বক্তা হিসেবে তিনি ছিলেন জনপ্রিয়। বাংলাসাহিত্যের বিশিষ্ট রম্যলেখক আতাউর রহমান গত ২৮ আগস্ট ঢাকায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেন।-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি